ফাউলের শিকার হয়ে তিন ম্যাচে জন্য নিষিদ্ধ এমবাপ্পে


কাগজে কলমে এটা লেখা থাকবে যে, প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়কে ধাক্কা দেওয়ার অপরাধে তিন ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছেন তারকাখ্যাত ফুটবলার কিলিয়ান এমবাপ্পে। কিন্তু নিমসের বিপক্ষে প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) ম্যাচের প্রত্যক্ষদর্শী মাত্রই বলবেন, কড়া ফাউলের শিকার হয়ে প্রতিবাদ করাতে এ শাস্তি পেয়েছেন পিএসজি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপ্পে।

লিগ ওয়ানে নিমসের মাঠে এ সপ্তাহের শুরুতে খেলতে গিয়েছিল। ফ্রেঞ্চ চ্যাম্পিয়নদের আক্রমণের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে উঠতে পারছিল না স্বাগতিক দল নিমস। বিশেষ করে এমবাপ্পে পুরো ম্যাচটাই তত্রস্থ করে রেখেছিলেন নিমসকে। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়েই ঘটে অঘটন। ৪-২ গোলে এগিয়ে থাকা অবস্থায় আরো একটি আক্রমণের পরিকল্পনায় ছিল এমবাপ্পে। এমন অবস্থায় তাঁকে কড়া ফাউল করেন নিমসের খেলোয়ার তেজি স্যাভানিয়ের। ভয়ংকর সে ট্যাকলে চোটে পড়ার ভালোই সম্ভাবনা ছিল।

স্বভাবতই খেপে যান এমবাপ্পে। স্যাভানিয়েরের দিকে গিয়ে স্যাভানিয়েরকে হালকা ধাক্কা দিয়ে কারণ জিজ্ঞেস করেন। যেহেতু মাঠে প্রতিপক্ষের দিকে আক্রমণাত্মক কোনো আচরণ করা যায় না, এ কারণে লাল কার্ড দেখতে হয় এমবাপ্পেকে। কড়া ট্যাকলের কারণে স্যাভানিয়েরের কপালেও তাই জুটেছে। এ নিয়ে পরবর্তী সময়ে সমর্থকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। তবে, ভবিষ্যতেও যদি কেউ এমন কিছু করে তাহলে তাঁকেও ছাড় দেবেন না। কোচ টমাস টুখেল লাল কার্ডের ব্যাপার মেনে নিলেও, নিজের খেলোয়াড়ের আচরণে কোনো দোষ দেখেননি তিনি। কারণ, ক্যারিয়ার শেষ করে দেওয়ার মতো ট্যাকল করলে যে কোনো খেলোয়াড়ই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলতে পারে—এমনটাই দাবি টুখেলের।

যেহেতু দুজনই সরাসরি লাল কার্ড দেখেছেন, সে ক্ষেত্রে এ শাস্তি যে শুধু এক ম্যাচে সীমাবদ্ধ হবে, সেটা নিশ্চিত ছিল। ফ্রেঞ্চ লিগের শৃঙ্খলা কমিটি জানিয়েছে, লাল কার্ডের ঘটনায় তিন ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা পাচ্ছেন বিশ্বকাপের সেরা তরুণ খেলোয়াড় এমবাপ্পে। ফলে সেন্ট এতিয়েন, রেনে ও রেইমসের বিপক্ষে মাঠে থাকতে পারবেন না এমবাপ্পে। তবে ১৮ তারিখ লিভারপুলের বিপক্ষের ম্যাচ খেলতে কোনো বাধা নেই তাঁর।

এমবাপ্পে অবশ্য একটা স্বস্তি পাচ্ছেন। কারণ তাঁকে ট্যাকল করার অপরাধে স্যাভানিয়েরকেও শাস্তি থেকে রেহাই দেন নি শৃঙ্খলা কমিটি। এরকম ভয়াবহ ট্যাকল করার অপরাধে এখন পাঁচ ম্যাচ গ্যালারি থেকে খেলা দেখতে হবে এই মিডফিল্ডারকে।
এখানে ক্লিক করুন ↓↓↓   ↓↓↓   ↓↓↓   ↓↓↓

কোন মন্তব্য নেই

Blogger দ্বারা পরিচালিত.