আপনারা যা খুশি করেন যা ইচ্ছা সাজা দেন, আদালতকে বেগম খালেদা জিয়া


জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিচারে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারের ভেতরে বসেছে বিশেষ আদালত। 

আশপাশের এলাকায় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে বুধবার কারাগারের প্রশাসনিক ভবনের নিচতলার ৭ নম্বর কক্ষে নতুন এই এজলাসে বিচারিক কার্যক্রম শুরু করেন ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ জনাব মো. আখতারুজ্জামান।

তবে আজ সেখানে উপস্থিত ছিলেন না বিএনপি'র চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কোনো আইনজীবী। 

এদিন, খালেদা জিয়া আদালতে বিচারপতিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা যা খুশি করেন, যা ইচ্ছা সাজা দেন।

এদিকে, জিয়া চ্যারিটেবল মামলায় আগামী ১২ ও ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করেছেন উক্ত আদালত।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সালের ৮ আগস্ট জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নাম করে অবৈধভাবে সরকারি টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনকে আসামি করে তেজগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, এবং হারিছের তখনকার সহকারী, একান্ত সচিব ও বিআইডব্লিউটিএর নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার দু'বছর আগে দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় বিগত ৮ ফেব্রুয়ারি বেগম খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন বিচারিক আদালত। ওই দিন থেকে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আবদ্ধ রয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

Post a Comment
Powered by Blogger.