কুড়িগ্রামে "প্রেমিক-প্রেমিকার খুন" লাশ মিললো সেচ পাম্পে ?


পুলিশ সূত্রে জানাজায় যে, কুড়িগ্রাম শহরতলীর বিসিক শিল্পনগরীর পার্শ্ববর্তী নলেয়ার পাড় থেকে দুই কিশোর-কিশোরীর লাশ উদ্ধার করা হয়। বুধবার সকালে পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করে। এলাকাবাসী জানায়, তাদের দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

পুলিশ জানায় যে, কিশোরীটি ডাকুয়া পাড়ার জাবেদ আলীর মেয়ে সেলিনা আক্তার তার বয়স ১৪ বছর এবং সে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। আর কিশোরটি হল পূর্ব কল্যাণ গ্রামের সৈয়দ আলীর পুত্র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম তার বয়স ১৬ বছর এবং ছেলেটি কুড়িগ্রাম টেশনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

এলাকাবাসীরা জানায়, গত মঙ্গলবার ওই কিশোর-কিশোরী দুজন কেই সাইকেলে ছড়ে ঘুরে ব্যাডাতে দেখা জায়। বুধবার সকালে তাদের একটি সেচ পাম্প ঘরের কাছে পড়ে অবস্থায় দেখা যায়। লোক জন দেখে পুলিশে খবর দেয়। গ্রামবাসী দের বলেন, ওদের মধ্যে প্রেমের সর্ম্পক ছিল, এ কারণে হতে পারে প্রতিপক্ষ কেউ এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। নিহত দু'জনেরই গলায় ওড়না পেঁচানো ছিল।

কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার মেহেদুল করিম জানান, তাদে লাশের অবস্থা এবং সব কিছুর রিপোর্ট অনুযায়ী প্রাথমিকভাবে এটি হত্যাকাণ্ড বলেই আমাদের মনে হচ্ছে। তবে তদন্তের সেটা পর বিস্তারিত জানা যাবে বলে জানান তিনি।

কোন মন্তব্য নেই

Blogger দ্বারা পরিচালিত.